1. admin@miarhat.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১০:০৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ হেডলাইন

কালকিনিতে আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর !! থানায় অভিযোগ

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪
  • ৩৯ বার পঠিত
কালকিনিতে আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর !! থানায় অভিযোগ

রতন দে,মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

মাদারীপুরের কালকিনিতে আওয়ামী লীগ নেতা অখিল চন্দ্র দাস(৬১) কে মারধর করে নগদ টাকা সহ ইন্ডিয়ার ভিসা লাগানো পাসপোর্ট ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বিচার দাবি করে কালকিনি থানায় অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী।

আজ (২৩) জুন রবিবার ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সুত্রে এ তথ্য জানা যায়। জানা যায়,মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার পার্শ্ববর্তি গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের মৃত অনিল কুমার দাস এর ছেলে আ.লীগের বার বার নিবার্চিত সাধারন সম্পাদক অখিল চন্দ্র দাস এর সাথে কালকিনি উপজেলার গোপালপুর এলাকার সুনীল চন্দ্র সরকারের ছেলে তপন কুমার সরকারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত ব্যবসায়ী এবং বরিশাল জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১০৭ ধারার একটি মামলা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে।

পুর্ব বিরোধের জের ধরে গত ২০ জুন অখিল চন্দ্র দাস ইন্ডিয়া চিকিৎসার জন্য জিএম পরিবহনে রওয়ানা দিলে গাড়িটি গোপালপুর ব্রীজের উপর আসলে তপন কুমার সরকার,তনয় সরকার সহ ১০/১২ জন লোক গাড়িটি ঘীরে ধরে গতিরোধ করেন এবং অখিল চন্দ্র দাসকে মারধর করে গাড়ি থেকে নিচে নামিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর করে মারাত্তক আহত করেন। এসময় আশেপাশের লোকজন আসতে শুরু করলে,আহত অখিল চন্দ্র দাসকে নিয়ে তপন সরকারের নিজ বাড়িতে আটকে রেখে নিযার্তন করেন। সে খানে আত্মচিৎকার দিলে,সে খান থেকে বের করে পাশে একটি বাগানে নিয়ে যান।

এ সময় তার কাছ থেকে নগদ ৪৭,০০০/ টাকা এবং ইন্ডিয়ার ভিসা লাগানো পাসপোর্ট নিয়ে তিনটি সাদা স্ট্যাম্প স্বাক্ষর নিয়ে মটরসাইকেল যোগে ভুরঘাটা বাসস্টান্ডে ছেড়ে দেন। পরে স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী অখিল চন্দ্র দাস কালকিনি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ভুক্তভোগী অখিল চন্দ্র দাস আজ রবিবার ঘটনার বিবরন দিয়ে বলেন, আমার সাথে তপন সরকারের ১০৭ ধারার মামলা নিয়ে বিরোধ চলছে। আমি কেন এ মামলা করলাম। আমি চিকিৎসার জন্য ইন্ডিয়া যাইতে ছিলাম ।

মামলার এর জেরে ধরে আমাকে হত্যা করার উদ্দেশে গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর করে তার বাড়িতে নিয়ে রুমে আটকিয়ে মারে। এক পর্যায় বড় একটি বাগানে নিয়ে যায় মারার জন্য। সে নিয়ে মারতে না পেরে, আমার ইন্ডিয়ার ভিসা লাগানো পাসপোর্ট ও নগদ ৪৭,০০০/ নিয়ে যায়। পরে আমাকে আহত অবস্থায় ভুরঘাটা বাসস্ট্যান্ডে ফেলে রেখে যায়। এঘটনায় বিচার দাবি করে কালকিনি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। অভিযুক্ত তপন সরকার বলেন, অখিল চন্দ্র দাস এর সাথে আমার পূর্বের ঝামেলা ছিল তাি গাড়ি থেকে নামিয়ে আনছি।গাড়ি ভিতর বশে একটু ধস্তাধস্তি হয়েছে। এ ব্যাপারে কালকিনি থানার এসআই বিরাজ কুমার দাস বলেন, অভিযোগটি তদন্ত হচ্ছে। তদন্ত শেষ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

© All rights reserved © 2022 Miarhat.com

Theme Customized By Miarhat