1. admin@miarhat.com : admin :
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৪৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ হেডলাইন
মিলন আব্দুল্লাহ ৩য় বই স্মৃতির কয়েদির মোড়ক উন্মোচিত অসহায় রোগীদদের সেবা করে মানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন শেবাচিমের কর্মচারী সুমন আলহাজ্ব সৈয়দ আবুল হোসেন স্মরণে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা মাননীয় কৃষি মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ডিকেআইবি মাদারীপুর ৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মিছিলে বোমা হামলা কালকিনিতে বিজয় দিবসে আনন্দ র‌্যালি করে রেকর্ড করলেন শিকারমঙ্গল মানব কল্যান সংগঠন মাদারীপুর ৩ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম ক্রয় করলেন যারা ৬ষ্ঠ বারের মত চ্যাম্পিয়ন হলেন অস্ট্রেলিয়া মাদারীপুর ২ আসনের মনোনয়ন ফরম ক্রয় করবেন গোলাম রাব্বানী কালকিনিতে শান্তি সমাবেশে জনতার ঢল।

মাদারীপুর জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হলেন ইশরাত জাহান রিক্তা

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২৭৮ বার পঠিত

মিয়ারহাট ডট কম অনলাইন:

মাদারীপুর জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হয়েছেন কালকিনি উপজেলার প্রধান শিক্ষিকা ইশরাত জাহান রিক্তা। তিনি জেলার প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২৩ এর জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ১৩৭ নং লামচরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা। আজ রোববার দুপুরে জেলা সম্মেলন কক্ষে তাকে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে ঘোষনা করেন জেলা প্রশাসন। ইশরাত জাহান রিক্তা এর আগেও উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়েও শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ বদিউজ্জামান বলেন, ইশরাত জাহান রিক্তা তার কর্মদক্ষতার মধ্য দিয়ে নিজেকে শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করেছেন। তিনি তার কার্যক্রম, দক্ষতা, প্রতিষ্ঠানের অ্যাক্টিভিটিস ও আইসিটিতে অভিজ্ঞতা দেখিয়েছেন। তিনি চলতি বছরে উপজেলা ও জেলায় পারদর্শিতা দেখিয়েছেন। এর আগেও তিনি বিভাগীয় পর্যায়েও শ্রেষ্ঠ হয়েছিলেন। শিক্ষিকা হিসেবে তার ব্যাপক অর্জন রয়েছে।

শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা রিক্তা বলেন,“সকলের প্রেরণা ও উৎসাহে আজ আমি উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে আবারও সেরা প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হয়েছি। আমার আজকের প্রাপ্তিতে উপজেলায় যারা আমাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তাদের সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।” আমি এর আগে বিভাগীয়ভাবে পারদর্শিতা দেখিয়ে একবার শ্রেষ্ঠ হয়েছিলাম। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেনো আমার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারি।

তার বিদ্যালয়ের একজন সহকারী শিক্ষিকা বলেন, “তিনি শিক্ষা বিষয়ে খুবই সচেতন। কিভাবে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করালে ভালো ফলাফল করা সম্ভব সে বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন। আমাদের সবসময় উৎসাহ দেন।”এমন একজন গুণী শিক্ষকের সঙ্গে একই বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন থেকে কাজ করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করি। আজ তার কারনে আমাদের বিদ্যালয়ের নাম উজ্জ্বল হয়েছে। আমরা তার উজ্জ্বল ভবিষৎ কামনা করছি।

এ জাতীয় আরও খবর

© All rights reserved © 2022 Miarhat.com

Theme Customized By Miarhat